ইবিতে আরববিশ্বে ঠাকুরের প্রভাব বিষয়ক আন্তর্জাতিক সেমিনার

0
29
আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।

রহমান, ইবি প্রতিনিধি:-
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের আয়োজনে আন্তর্জাতিক সেমিনার
অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার সকাল ১০ টায় রবীন্দ্র- নজরুল কলা ভবনের গগণ হরকরা গ্যালারিতে সেমিনার টি অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারের প্রধান আলোচ্য বিষয় ছিলো আরব বিশ্বে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রভাব।

আলোচ্যকদের আলোচনার মাধ্যমে জনা যায়, বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর আরব বিশ্ব তথা ইরাক, মিশর সহ ৩১ টি দেশে ভ্রমণ করেছিলেন। আরব বিশ্বের কয়েকটি দেশে তার গ্রন্থ আরবী ভাষায় অনুবাদ করা হয়েছে। এসকল গ্রহন্থের মাধ্যমে জানা যায় তিনি তার সাহিত্যের দ্বারা আরব কবিদের প্রভাবিত করেছেন। এছাড়াও তার সাহিত্যের মাধ্যমে বোঝা যায় তিনি বহু ঈশ্বর বাদীতে বিশ্বাসী ছিলেন না। তিনি একেশ্বরবাদীতে বিশ্বাসী ছিলেন। তিনি তার সাহিত্যের মাধ্যমে চেয়েছিলেন বহুরূপী ঈশ্বরবাদে অবসান ঘটিয়ে সকল ধর্মের মানুষকে একেশ্বরবাদীতে বিশ্বাস করানো। যার ফলে সমাজ থেকে বিবেধ দূর হয়ে সকলকে হয়।

সেমিনারটিতে আরবী ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. আব্দুল মোত্তালিব এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. শেখ আব্দুস সলাম। প্রধান প্রবন্ধকার হিসেবে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী ও পর্সিয়ান বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মোঃ ইশরাত আলী মোল্লা।
আন্তর্জাতিক সেমিনারের নির্বাহি কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর ড. তোজাম্মেল হোসেন, প্রক্টর প্রফেসর ড. জাহাঙ্গীর হোসেন। এছাড়াও সেমিনারে আলোচনা রাখেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. মিজানুর রহমান, ইংরেজী বিভাগের প্রফেসর ড. মিজনুর রহমান, প্রফেসর ড. হাবিবুর রহমান, আরবি বিভাগের প্রফেসর ড. মাহফুজুর রহমান, প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমান, প্রফেসর ড. মোস্তাক মোহাম্মাদ মনোয়ার আলী, প্রফেসর ড. কামরুল হাসান, প্রফেসর ড. রফিকুল ইসলাম। অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনা করেন প্রফেসর ড. শামসুল হক সিদ্দিকী। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী সহ প্রায় তিন শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভিসি প্রফেসর ড. শেখ আব্দুস সালাম বলেন, প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভিসি প্রফেসর ড. শেখ আব্দুস সালাম বলেন, রবীন্দ্রনাথ নাম টা শুনলেই মনে হয় হিন্দু। আসলে তিনি সাহিত্যিক ছিলেন। আত্মার মুক্তি ছিলেন। তিনি অন্য সকল আত্মকে মুক্তি দিতে চাইতেন। এর ফলে সমাজ থেকে যাতে কলহ দূর হয়।

প্রধান প্রবন্ধকার এর আলোচনায় কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী ও পর্সিয়ান বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মোঃ ইশরাত আলী মোল্লা বলেন, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ভারতবর্ষে কবি হলেও তিনি বিশ্বের ৩১ টি দেশে ভ্রমণ করেছেন। আরব কবিদের সাথে তার অনেক ভালো সম্পর্ক ছিলো। তাকে নিয়ে আরব কবিরা সাহিত্যও লিখেছেন। এছাড়া তিনি একেশ্বরবাদীতে বিশ্বাসী ছিলেন।

আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।