গৃহকর্তাকে হত্যার হুমকি!চরফ্যাশনে মসজিদের খাদেমের স্ত্রীকে বাগিয়ে নেয়ায় যুবলীগ নেতা বহিস্কার!

0
6
আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।

স্টাফ রিপোর্টার!!
ভোলার চরফ্যাশনে পরকিয়ার দায়ে আব্দুর রহিম নামের এক যুবলীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। উক্ত ব্যাক্তি স্থানীয় পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারন সম্পাদক পদে ছিলেন বলে জানা গেছে। তিনি এলাকার বাসিন্দা মোঃআলী মাতাব্বরের পুত্র।
প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী জানান,উক্ত রহিম পৌর এলাকার ৯ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আব্দুল আজিজের স্ত্রী তিন সন্তানের জননী জোসনা বেগমের সাথে পরকিয়ার সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হওয়ার পরও রহিম গৃহবধূর সাথে প্রকাশ্যে ব্যাভিচারে লিপ্ত থাকেন। ঘটনানাটি সহ্য করতে না পেরে জোসনা বেগমের স্বামী মাওলানা আব্দুল আজিজ চলতি বছরের ২৫ এপ্রিল স্থানীয় সাংসদ আব্দুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব বরাবর যুবলীগ নেতার কু-কীর্তির প্রতিকার চেয়ে দরখাস্থ্য করেন। সাংসদ বিষয়টির সমাধানের জন্য পৌর মেয়রকে দায়িত্ব দিলেও তখন মেয়র এব্যাপারে কোনপ্রকার ভূমিকা নেননি। ফলে রহিম যেন আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেন। সম্প্রতি এ যুবলীগ নেতা ওই গৃহবধূকে তার বাড়ী থেকে বাগিয়ে নিয়ে বেশ কিছুদিন আত্নগোপন থাকেন। এরপর ঘটনার বিবরন দিয়ে জোসনা বেগমের স্বামী আব্দুল আজিজ রহিমের বিরুদ্ধে চরফ্যাশন থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। ওই আবেদনে আবদূল আজিজ অভিযোগ করেন,আমি একজন নদী ভাঙ্গা অসহায় মানুষ। জীবিকার তাকিদে ঢাকার মহাখালীর একটি মসজিদে খাদেমের চাকুরী করছি। সেখান থেকে এ পর্যন্ত স্ত্রীকে তিন লাখ নব্বই হাজার টাকা পাঠাই। তাকে বেশ কিছু স্বর্নালংকারও দেয়া হয়। ঢাকা থাকতেই রহিমের সাথে স্ত্রী জোসনার পরকিয়ার খবর জানতে পারেন তিনি। এদিকে লিখিত অভিযোগের সূত্র ধরে চরফ্যাশন থানা পুলিশ রহিমকে খুজে আটক করলেও দলীয় লোকজন মিমাংসার প্রতিশ্রুতি দিয়ে রহিমকে পুলিশের হাত থেকে ছাড়িয়ে নেন। নাটকীয় এমন ঘটনার পরও বিষয়টির কোন ফয়সালা না করে উল্টো আজিজকে অভিযুক্ত রহিম ও তার ক্যাডাররা হত্যা-গুমের হুমকি দিচ্ছে বলে ভিক্টিম অভিযোগ করেছেন।
ওদিকে রহিমের বিরুদ্ধে নারীবাজী আর দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গসহ নানা অভিযোগে তাকে ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারন সম্পাদক পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। চরফ্যাশন পৌর যুবলীগের সভাপতি হাজী আব্দুস শহিদ’র সাথে কথা হলে তিনি রহিমকে বহিস্কারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এব্যাপারে জানতে অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা আব্দুর রহিমের সাথে কথা বলতে তার মুঠোফোনে যোগাযোগের চেস্টা করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি। বর্তমানে এ ঘটনাটিতে চরফ্যাশন পৌর শহরে বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। গৃহকর্তা আব্দুল আজিজ গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন,সন্ত্রাসী আব্দুর রহিম তাকে হত্যার হুমকি দিচ্ছেন। ক্যাডারদের দ্বারা তার জীবন বিপন্ন হওয়ার শঙ্কায় তিনি এখন পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বলেও জানিয়েছেন গণমাধ্যমকে। এ ব্যাপারে তিনি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও স্থানীয় সাংসদের আন্তরিক হস্তক্ষেপ চেয়েছেন।

আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।