ঠাকুরগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধুর শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন

0
1
আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।

আব্দুর রাজ্জাক বাপ্পী, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁওয়ে স্বাধীনতার মহান স্থপতি ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়েছে।

সোমবার সকালে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসনের আয়োজনে কালেক্টরেট চত্বর থেকে জাতীয় শোক দিবসের একটি শোক র‌্যালী বের হয়। র‌্যালীটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে এবং জেলা পরিষদ অডিটোরিয়াম চত্বরে গিয়ে শেষ হয়।

এরপর জেলা পরিষদ ডাকবাংলো চত্বরে নির্মিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পন করা হয়। এছাড়াও আওয়ামী লীগ ও তার সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান থেকেও শোক দিবসের র‌্যালী বের হয় এবং তারাও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পন করে।

পুষ্পমাল্য অর্পন শেষে ঠাকুরগাঁও জেলা পরিষদ অডিটোরিয়াম হলরুমে শোক দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভার শুরুত্বে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক মো. মাহবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে শোক দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঠাকুরগাঁও-১ আসনের সংসদ সদস্য সাবেক মন্ত্রী বীরমুক্তিযোদ্ধা রমেশ চন্দ্র সেন।

সাবেক মন্ত্রী রমেশ চন্দ্র সেন বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে এই বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে। স্বাধীনতার পর ষড়যন্ত্রকারীরা বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের নির্মমভাবে হত্যা করেছে। বাবা-মা, ভাইবোনসহ আপনজনদের হারিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরিবারের স্বজনদের হারানো কষ্ট চেপে রেখে শেখ হাসিনা প্রতীজ্ঞা করেছেন- বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণ করতে হবে। তারই লক্ষ্যে তিনি দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন।

রমেশ চন্দ্র সেন বলেন, স্বাধীনতা এবং মুক্তির সংগ্রামে নেতৃত্বদানকারী রাজনৈতিক দল হিসেবে আওয়ামী লীগ যুগ যুগ ধরে বাংলাদেশের মানুষের হৃদয়ে বেঁচে আছে এবং থাকবে। বিশ্ব সংকটে শেখ হাসিনা এক সাহসী উচ্চারণ। কারণ ‘জিয়া, এরশাদ এবং খালেদা জিয়া বাংলাদেশকে অন্ধকারের পথে নিয়ে গেছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ প্রগতি ও আলোর পথে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।

এছাড়াও আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন, জেলা পরিষদ প্রশাসক ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুহাম্মদ সাদেক কুরাইশী, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দীপক কুমার রায়, সহ-সভাপতি মাহবুবুর রহমান খোকন, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম স্বপন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বদরুদ্দোজা বদর, ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সভাপতি মনসুর আলী, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদর উপজেল আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট অরুনাংশু দত্ত টিটো প্রমুখ।

আলোচনা সভা শেষে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন অতিথিরা।

আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।