ঠাকুরগাঁওয়ে ভূল্লীতে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুন, ক্ষতি দশ লক্ষ টাকার

0
28
আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।

আব্দুর রাজ্জাক বাপ্পী, ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁওয়ে ভূল্লীতে কুমারপুর বিন্নাকুড়ি পাড়া গ্রামে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দিনমজুর সুয়েলের বাড়ির গোয়াল ঘরে থাকা ৪টি বিদেশি গরু, ১টি দেশী গরু, ৭টি ছাগলসহ, হাঁস, মুরগি ও গোয়াল ঘরের পার্শ্বে রুমে গোলায় থাকা চাল, কাপড় পুড়ে আনুমানিক ১০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

বুধবার (১৫ মার্চ) রাত ৯টা ১৫ মিনিটের দিকে সদর উপজেলার ভূল্লী থানার ৫ নং বালিয়া ইউনিয়নের কুমারপুর বিন্নাকুড়ী পাড়া গ্রামে এ দূর্ঘটনা ঘটে।

ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিনের ন্যায় গোয়াল ঘরে গরু রেখে ঘুমিয়ে পড়েন দিনমুজুর সুয়েল এর পরিবার। রাত ৯টা ১৫ মিনিটের দিকে গোয়াল ঘরে আগুন দেখতে পেয়ে তার পরিবারের লোকজন চিৎকার শুরু করলে স্থানীয়রা ছুটে আসে। পরিবারের লোকজন ও স্থানীয়রা মিলে আগুন নেভাতে চেষ্টা শুরু করেন। ততক্ষণে আগুনের লেলিহান শিখা চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ায় গোয়াল ঘরের ভেতরে থাকা অন্তঃসত্ত্বা একটি গরু সহ পাঁচটি গরু, ৭টি ছাগল, হাস,মুরগী ও গোয়াল ঘরের পার্শ্বের রুমে গোলায় থাকা চাল পুড়ে যায়। পরিবারের লোকজন ও স্থানীয়দের প্রচেষ্টায় প্রায় ১ ঘন্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রনে আনা গেলেও গোয়াল ঘর ও গোয়াল ঘরে থাকা কোন কিছুই রক্ষা করা সম্ভব হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

ক্ষতিগ্রস্ত সুয়েল বলেন, আমি দিনমজুরের কাজ করি। অনেক কষ্ট করে মানুষের কাজ করে ও এনজিওর কাছে কিছু লোন নিয়ে কয়েকটি বিদেশি গরু ও ছাগল কিনি। হঠাৎ লেগে আমার সব শেষ হয়ে গেছে আমি নিঃস্ব হয়ে গেলাম। এতে করে আমি পথে বসে গেলাম। গরু পালন করে পরিবারের সদস্যদের ভরন পোষন চলতো। এখন আর সেই উপায়টুকু আর থাকলো না।

৫ নং বালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জুলফিকার আলী ভূট্টো চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সুয়েল একজন অসহায় দিনমজুর। গবাদি পশু গুলি লালন পালন করে তার পরিবার অনেক উপকৃত হতো। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় তার গোয়াল ঘর সহ গবাদি পশু ও গোলায় থাকা চাল পুড়ে আনুমানিক ১০ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে। এতে সে অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হলো। আমি রাতেই ভারপ্রাপ্ত ইউএনও স্যারসহ ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। ইউএনও মহোদয় সহযোগীতা করতে চেয়েছে।

ঠাকুরগাঁও ফায়ার সার্ভিসের ও সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন জানান, আমরা খবর পাওয়া পর দ্রুত ঘটনা স্থলে যাই। প্রায় আধা ঘণ্টা কাজ করেছি আমরা। বৈদ্যুৎতিক শট সার্কিটের কারণে ওই দিনমজুরের গোয়াল ঘরে আগুন লেগে গরু, ছাগল, মুরগিসহ ঘরে থাকা চাল পুড়ে গেছে।

ভারপ্রাপ্ত ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তানজিলা তাসনিম বলেন, ঘটনা শুনার পরেই সেই ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ী রাতেই পরিদর্শন করেছি। জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সেই দিনমজুরকে সহযোগিতা করা হবে।

আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।