ঠাকুরগাঁওয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ

0
8
আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।

আব্দুর রাজ্জাক বাপ্পী, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ঠাকুরগাঁওয়ে আলোচনা সভা ও সার্টিফিকেট বিতরণ করা হয়েছে।

বুধবার বিকেলে ‘শোকের শক্তিতে শাণিত হোক রক্তস্নাত বাংলাদেশ’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে কারুপণ্য উন্নয়ন সংস্থার আয়োজনে শহরের তাঁতীপাড়া এলাকায় অবস্থিত কুশ শিশু নিকেতন হলরুমে এই অনুষ্ঠানটি হয়।

কারুপণ্য উন্নয়ন সংস্থা ও কুশ শিশু নিকেতনের পরিচালক চন্দনা ঘোষের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহবুবুর রহমান বাবলু।

বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহবুবুর রহমান বাবলু বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের প্রতিচ্ছবি ও গরিবের অনুভূতি। রাজনৈতিক নেতা হিসেবে তিনি অবিস্মরণীয়, অতুলনীয়। রাষ্ট্রনায়ক হিসেবে ছিলেন দুর্দান্ত ও দক্ষ একজন মানুষ। যারা বঙ্গবন্ধুকে মেরে ফেলেছে তারা শুধু তাকেই হত্যা করেনি, গোটা দেশকে মেরে ফেলেছে।

তিনি বলেন, আগস্ট মাস অনুতাপের মাস, অনুশোচনার মাস। একজন মানুষ রাজনৈতিকভাবে বিভিন্ন মতাদর্শে বিশ্বাসী হতে পারেন; কিন্তু বঙ্গবন্ধুর প্রকৃত ইতিহাস জানলে এমন কোনো মানুষ নেই যে তাকে অস্বীকার করতে পারবে।

বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিচারণ করে বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহবুবুর রহমান বাবলু বলেন, বঙ্গবন্ধুর অনেক কিছুই আমরা মানুষের কাছে তুলে ধরতে পারিনি। শুধু তাই নয়, ’৭৫-এর পরে সেই ইতিহাসকে বারবার চাপা দেয়ার চেষ্টা করা হয়েছিল। একটি যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশের দায়িত্ব নিয়েছিলেন তিনি। তখন চারদিকে শুধুই পোড়ামাটির স্তুপ। রাষ্ট্রীয় কোষাগার ছিল অর্থশূন্য। উনার পাশে শুধু ছিল এই সাড়ে ৭ কোটি বাঙালি। মাত্র সাড়ে ৩ বছরের মধ্যেই তিনি যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশকে ঢেলে সাজিয়েছিলেন।বঙ্গবন্ধুর এসব সঠিক ইতিহাস কোমলমতি শিশুদের জানাতে হবে।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম স্বপন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নজমুল হুদা শাহ এ্যাপোলো, ডেইলি স্টার পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি কামরুল ইসলাম রুবাইয়াত।

এছাড়াও বক্তব্য দেন সোনালী শৈশব বিদ্যা নিকেতনের ভারপ্রাপ্ত প্রিন্সিপাল আঞ্জুমান আরা মুক্তা, শিল্পী শম্পা শাহা, প্রমুখ।

আলোচনা সভা শেষে চিত্রাঙ্কন, গান ও কবিতা প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ৩৫ জন শিক্ষার্থীর মাঝে পুরস্কার ও সার্টিফিকেট বিতরণ করেন অতিথিরা।

আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।