দৌলতখান উপজেলা যৌতুকের জন্য নির্যাতনের অভিযোগ, স্মৃতিশক্তি হারাতে বসেছেন গৃহবধূ

0
13
আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।

বিশেষ প্রতিনিধিঃ
দৌলতখান উপজেলা কলাপাড়া ২নং ওয়ার্ড সিরাজ বেপারি বাড়ি বিয়ের পর থেকে যৌতুকের টাকার জন্য স্ত্রী সুলতানা কে নির্যাতন করার অভিযোগ ছিল মোঃ রিয়াজের (২৭) বিরুদ্ধে। সর্বশেষ গত ১৫ মে নির্যাতনের কারণে সুলতানা এখন মানসিকভাবে বিপর্যয়ের মুখে দিন কাটাচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছে পরিবার। মাথা তীব্র যন্ত্রণা ইনস্টিটিউটের শয্যায় কাতরাচ্ছেন তিনি।

সুলতানা আলীনগর ইউনিয়নের
মোঃ আব্দুল হাই এর মে এ ঘটনায় সুলতানা বাদী হয়ে কোর্টে গত রবিবার একটি মামলা করেন। মামলায় মোঃ রিয়াজ (২৭) তাঁর মা বিবি জয়নাব (৫৫) কে আসামি করা হয়েছে।

ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্র জানায়, ২০২১ সালের ২ ফেব্রুয়ারি মোঃ রিয়াজ এর (২৭) সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় সুলতানা এর (১৯)। মোঃ রিয়াজ দৌলতখান উপজেলার একটি দোকানে চাকরি করতো। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকসহ বিভিন্ন অজুহাতে ওই গৃহবধূকে মারধর করতেন রিয়াজ ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা।

সুলতানা ও তার বাবা আব্দুল হাই বলেন রিয়াজ দুষ্ট দুর্দান্ত , যৌতুকলােভী, যৌতুকের দাবীতে মহিলাদের গায়ে হাত তােলা তাহাদের নেশা ও পেশা বটে, মোঃ রিয়াজ ও শ্বাশুড়ী বিবি জয়নাব, মোঃ রিয়াজ বিগত ১২,০২,২০২১ ইং তারিখে ইসলামিক শরাশরীয়ত মােতাবেক রেজিঃ কাবিন মূলে বিবাহ হয়, বিবাহের সময় আমার পিতা – মাতা আমার ভবিষ্যত সুখ শান্তির কথা বিবেচনা করিয়া রিয়াজ কে ১ ভড়ি ওজনের স্বর্ণের চেইন এবং রিয়াজের ভগ্নিপতিদের সহ মােট, আনা ওজনের ৫ টি স্বর্ণের আংটি প্রদান পূর্বক আমাকে আমার স্বামীর বাড়ীতে তুলিয়া দেয়, অতঃপর আমার স্বামী রিয়াজের চাকুরীর কথা বলে কৌশলে আমার পিতা – মাতার কাছ থেকে নগদ ৫,০০,০০০-(পাঁচ লক্ষ) টাকা নেয়, তাহার কয়েক মাস পর আবারাে শুরু করে যৌথুকের টাকার জন্য বিভিন্ন তালতামাশা, আমাকে বিভিন্ন ভাবে আমার স্বামী রিয়াজ শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করিয়া আসিতে থাকেন এবং আমার কাছে যৌতুক হিসাবে ২,০০,০০০-(দুই লক্ষ) টাকা দাবী করেন। আমি অপারগতা প্রকাশ করিলে রিয়াজ আমার যাবতীয় জিনিসপত্র রেখে আমাকে এককাপড়ে আমার পিতার বাড়ীতে পাঠিয়ে দেয় । আমি দীর্ঘদিন পিতার বাড়ীতে মানবেতর জীবন যাপন চলমান
করিতে থাকায় আমার পিতা – মাতা সহ নিম্নোক্ত সিরাজুল ইসলাম কে খবর দিলে তাহাতে ঘটনার তারিখ ও সময় অত্র সিরাজল ইসলাম তার পরিবারসহ ঘটনাস্থলে অর্থাৎ বিগত ১০,০৯,২১ইং তারিখে আমার পিতার বাড়ীতে আসিলে আমার পিতা তাদের সম্মুখে মোঃ রিয়াজ কে জিজ্ঞাস করেন যে , আমার মেয়ে কি অন্যায় করিয়াছে যে , তাহাকে এই ভাবে আমাদের বাড়ীতে ফালাইয়া রেখেছেন, ইহাতে রিয়াজ আমার পিতার নিকট ২,০০,০০০(দুই লক্ষ) টাকা যৌতুক দাবী করেন, তাহাতে আমার পিতা প্রকাশ করেন যে , আপনার চাকুরীর জন্য ৫,০০,০০০(পাঁচ লক্ষ)টাকা দিয়েছি, এখন আবার ২,০০,০০০(দুই লক্ষ) টাকা দাবী করিতেছেন, তাহাতে আমার পিতা রিয়াজ কে উক্ত টাকা দিতে অক্ষমতার কথা প্রকাশ করিলে রিয়াজ যৌতুকের টাকা ব্যতিত আমাকে নিবে না মর্মে ছাফ অস্বীকার করেন, আমাকে তালাক দিবেন মর্মে উল্লেখ করেন, একপর্যায়ে আমাকে রেখে চলে যান।

আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।