বাউফলে ফেলে দেয়া হলো শতাধিক করোনা টিকা

0
25
আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।

কাইয়ুম হোসেন, বাউফল প্রতিনিধি :-

পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলায় নার্সদের দায়িত্ব অবহেলার কারনে করোনা টিকা ফাইজারের শতাধিক ১ম ও ২য় ডোজ টিকা ফেলে দেওয়া হয়েছে।
গত ২০.০২.২২ইং তারিখ রোজ রবিবার বেলা ১১টায় বাউফল উপজেলা পরিষদ অফিসার ক্লাবে এ ঘটনা ঘটেছে।

জানা গেছে, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টিকা কার্যক্রমের স্থান সংকুলন না হওয়ায় উপজেলা পরিষদের অফিসার ক্লাবে গত ১লা অক্টোবর থেকে স্কুল কলেজ ও মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের মাঝে কোভিট-১৯ টিকার কার্যক্রম শুরু হয়। শুক্রবার ব্যতিত সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলে। সরেজমিনে দেখা গেছে, টিকা কার্যক্রমে দায়িত্বে থাকা বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সিনিয়র স্টাফ নার্স ফেরদৌসি আক্তার ভায়াল থেকে শতাধিক টিকার ডোজ সিরিঞ্জে ভরে জমা করে রাখেন এবং সেই টিকাগুলো আখি বেগম ও রিপা বেগম শিক্ষার্থীদের শরীরে পুশ করেছেন। ওই সময় শিক্ষার্থীর অভিভাবক সোহরাব হোসেন বাঁধা দিয়ে কার্যক্রম বন্ধ রাখার কথা বলায় টিকাদানকারীরা অশালিন আচরণ করেন।
বিষয়টি নিয়ে ইপিআই টেকনিশিয়ান মো: মঞ্জুরুল হক জানান, এভাবে রাখলে টিকার স্বাভাবিক গুনগতমান নষ্ট হয়ে যায়। ইতিমধ্যে টিকা গুলো পরিত্যাক্ত ঘোষনা করা হয়েছে।
টিকা কেন্দ্রে দায়িত্বে থাকা সিনিয়র স্টাফ নার্স ফেরদৌসি আক্তার, আখি ও রিপা বেগম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ইপিআই টিকা কার্যক্রমের কোন ধরনের অভিজ্ঞতা না থাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। ইপিআই কার্যক্রম যারা পরিচালনা করেন তারা শুরু থেকেই ভায়াল থেকে টিকা সিরিঞ্জে ভরে জমা রেখে একের পর এক পুশ করেন বিধায় আমরাও একই নিয়ম পালন করছি।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার সাহা জানান, সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করার অভিযোগে ঘটনার সাথে জড়িত নার্সদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।