ভোলার রাজাপুরে প্রবাস থেকে এসে আ’লীগ নেতা ভুট্টু’র সাথে আপত্তিকর অবস্থায় স্ত্রীকে ধরলেন স্বামী

0
10
আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।

আশিকুর রহমান শান্ত
ভোলা প্রতিনিধি

জীবিকার তাগিদে স্বামী থাকেন প্রবাসে। এ সুযোগে তার স্ত্রী ৪ সন্তানের জননী এলাকার প্রভাবশালী আওয়ামী নেতার ভুট্টু মেম্বার এর সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন। এলাকায় সবার মুখে মুখে এ নারীর পরকীয়ার কথা থাকলেও রাজাপুর ইউনিয়নের ১,২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত সাবেক মহিলা মেম্বার নাসরিন আক্তার এর স্বামী ভুট্টু সরদার ওরফে ভুট্টু মেম্বার স্থানীয় প্রভাবশালী আওয়ামীলীগ নেতা হওয়ায় পরকীয়া প্রেমিক ও তার সাথে প্রতিনিয়ত অনৈতিক কার্যকলাপ এর বিষয় মুখ খোলার সাহস পায়নি অত্র এলাকার কেউ। এলাকায় প্রচলিত রয়েছে সরকার দলীয় রাজনীতির ইউনিয়ন পর্যায়ের প্রভাবশালী নেতা ভুট্ট সরদার এতটাই ভয়ঙ্কর যে তার অন্যায় অবিচার ও অনিয়ম এর বিষয়ে কেউ প্রতিবাদ করলে তার উপর ভুট্টু মেম্বারের নির্যাতনের স্টিম রোলার শুরু হয়ে যায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সংরক্ষিত সদস্য নাসরিন আক্তারের স্বামী ভুট্টু মেম্বার বর্তমানে গনধর্ষণ মামলার সাজাপ্রাপ্ত (আপিলে জামিন প্রাপ্ত) আসামী বটে। এলাকার বিভিন্ন সূত্র জানায়, রাজাপুর ২নং ওয়ার্ডের আওয়ামীলীগ নেতা ভুট্ট মেম্বার একই ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের বাসিন্ধা প্রবাসী নুরুল ইসলাম এর স্ত্রীর সাথে দীর্ঘ ৭ বছর ধরে এই পরকীয়ার সম্পর্ক বৃদ্ধমান রয়েছে।

শনিবার (৮ই ডিসেম্বর) সরজমিনে যাওয়ার পরে নুরুল ইসলাম বলেন, আমি সৌদিআরব প্রবাসী, দীর্ঘদিন যাবৎ তার সন্তান ও এলাকার বিভিন্ন নির্ভরযোগ্য মাধ্যমে শুনেন যে তার স্ত্রী ভুট্ট সরদার ওরফে ভুট্ট মেম্বার এর সাথে পরকীয়া করে আসছেন। বিভিন্ন সময় স্ত্রী কে আমি ও আমার মেয়েরা এ বিষয় সর্তক করলেও স্ত্রী কোন কর্ণপাত করেনি। বরং আরো বেপরোয়া হয়ে উঠে সে। সর্বশেষ ছোট দুই মেয়ের পরীক্ষা শেষে বড় মেয়ের বাসায় ঢাকা বেড়াতে পাঠিয়ে, খালি ঘরে ভুট্ট মেম্বার কে নিয়ে রাত কাটান আমার স্ত্রী। আমার স্ত্রী ও ভুট্টু মেম্বারের আপত্তিকর বেশ কিছু ছবি বিভিন্ন মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এমন খবর পেয়ে বিদেশ থেকে কাউকে কিছু না জানিয়ে সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশে এসে, গতকাল রাতে বাড়ীতে গিয়ে দেখি স্ত্রী দরজা আটকিয়ে ঘরের মধ্যে অন্য পুরুষের সাথে আমদ ফুর্তি করছে। আমি তাদেরকে হাতে নাতো ধরার জন্য ঘরে সিঁধকেটে ভিতরে প্রবেশ করে দেখি আমার স্ত্রী ভুট্ট মেম্বারের সাথে আপত্তিকর অবস্থায় রয়েছে। স্ত্রী ও ভুট্ট মেম্বারকে অনৈতিক অবস্থায় দেখতে পাওয়ায় স্ত্রী ও ভুট্টু মেম্বর আমাকে মারার জন্য দা ও বটি নিয়ে আমার উপর ঝাপিয়ে পরে, উপায়অন্ত না পেয়ে আমি ডাক চিৎকার দিলে তার পরকীয়া প্রেমিক ভুট্টু মেম্বার সহ দুই জন মিলে আমাকে হত্যার চেষ্টা করে।

প্রবাসী নুরুল ইসলামের মেয়েরা বলেন, আমার মায়ের বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ যা বলে শেষ করা যাবে না। আমরা বিভিন্ন সময় ভুট্টু মেম্বার আমাদের ঘরে এসে আমার মায়ের সাথে অনৈতিক কার্যকলাপ করতে দেখেছি। এ নিয়ে আমরা মাকে ডাক দিলে মা আমাদের মেরে ফেলবেন বলে হুমুকি দেন। জীবন বাচানোর তাগিদে এই ঘটনা আমরা কাউকে জানাতে পারিনি। তারা অভিযোগ করে আরও বলেন গতকাল আমার বাবা হাতে নাতে ভুট্ট মেম্বারের সাথে মাকে ধরেছে।

অভিযুক্ত নারী এ বিষয়ে বলেন, ভুট্ট ভাই কালকে আসছে তবে আমার সাথে কিছু হয়নি। ছবির বিষয় জানতে চাইলে তিনি বলেন আপনারা ছবি নেটে ছেড়ে দেন।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ভুট্টু মেম্বারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, একজনের সাথে আরেক জনের সম্পর্ক থাকাটা স্বাভাবিক। এতে আমার কিছু হবে না, আমাকে কিছু বলার মত রাজাপুরে এমন কারো সাহস নেই।ভাইরাল ছবির বিষয় সে বলেন এ ছবি কে বা কাহারা ছড়িয়ে দিয়েছে আমি জানিনা।

আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।