ভোলা লালমোহন জমিজমা কে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপে সংঘর্ষ আহত, ৪

0
13
আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।

ভোলা প্রতিনিধি
ভোলা লালমোহন উপজেলা সদর থানাধীন দলি কার নগর ইউনিয়নে জমি জমাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপে হামলা আহত ৪
তথ্য অনুযায়ী জানা যায় ভোলা লালমোহন দলিকার নগর ইউনিয়ন ৫ নং ওয়াডের এর বাসিন্দা ১/ মোঃ ইলিয়াস (৩৫) পিতাঃ মোসলেম ২/ আরজু(৪০) পিতাঃজালাল আহমেদ ৩/ আঃ রহিম (৬৫) পিতা মৃত আমির হোসেন ৪/ ইসমাইল (৪০) পিতাঃ মোসলেম সহ সোমবার সকাল আনুমানিক ৮ ‘৩০ মিঃ এর সময় ইলিয়াস তাদের নিজ দখলিকার ফসলি জমিতে ফাওটিলার দিয়ে জমি চাষাবাদ করার জন্যে জমিতে যায়।

তখন একই এলাকার ১/মোঃআবদুল আলী (৬০) পিতাঃ তুরজুন আলী ২/ মোঃ ইউনুস (৩৫) পিতাঃ আঃ আলী ৩/ হোসেন আরা ৪/ মিরাজ ৫/ রিয়াজ সহ অগ্যাত ১০ থেকে ১৫ জন লোক ইয়াসিনের দিকে বগি দা ও দামা চাইনিজ কুড়াল লাঠি সোটা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তেড়ে আসে তখন ইয়াসিন ডাক চিৎকার দেয়, তাহারাত ডাক চিৎকারে অন্য সাক্ষীরা ঘটনাস্থলে আসে তখন তাদের কে মারধর করে। স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় লালমোহন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করলে ইয়াসিন সহ কিছু লোকের অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে সেখানকার কর্মরত ডাক্তার ভোলা সদর হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য রেফার করে।

ভোলা সদর হাসপাতালে কিছুটা সুস্থ হলে মোঃ ইলিয়াস জানান আঃ আলী ও তার ছেলেরা মিলে সবাই আমাদের কে এলোপাতাড়ি মারধোর করে। ও আমাকে হাত এলোপাতাড়ি বগি দা দিয়ে কুপিয়ে জখম করে, এবং আমার সাথে থাকা নগদ ৬৫ হাজার টাকা আট আনি ওজনের একটা স্ননের চেইন চিনিয়ে নিয়ে যায়। এক পযার্য়ের আমাদের ডাক চিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজন এসে আমাদেরকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য লালমোহন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে তখন আমাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে ভোলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠিয়েছে।
মারধরের বিষয়টি জানার জন্য অভিযুক্ত মোঃ আঃআলীর সাথে মুঠোফোন যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তাদেরকে ফোনে পাওয়া যায় নাই।
মারধরের বিষয়টি স্থানীয় ওয়াড মেম্বার এর সাথে মুঠোফোন যোগাযোগ করলে তিনি জানান দুই পক্ষের ভিতরে জমি চাষাবাদ নিয়ে ধাওয়া-পাল্টা ওমারধ হয়েছে তারা ভোলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে। কিছু স্থানীয়ভাবে লালমোহন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে, তারা সুস্থ হলে আইনিওভাবে ব্যবস্থা নিতে পারবে। আগে তারা চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হোক।

আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।