সেই অসহায় বৃদ্ধাকে ঘর উপহার দিচ্ছেন বোরহানউদ্দিনের চেয়ারম্যান আঃ রব কাজী

0
18
আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।

রিয়াজ ফরাজী বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধিঃ-

টাকা থাকলে টাকা দাও
দাও ঘরের চাউল
পারলে কিছু খাবার দাও
নয়তো কিছু ডাউল ।

কবরের বাঁশ দাও
দাও চিতার কাঠ
হাসপাতালের অক্সিজেন দাও
নয়তো রোগির খাট।

ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার কাচিয়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মক্কার পোল বাজারের সন্নিকটে এই বৃদ্ধ মহিলার বসবাসের জায়গা , সহায় সম্বলহীন -নাম – মোসাঃ ছহুরা বেগম (৮০) নামক এই বৃদ্ধা মহিলা -প্রায় ৪০ বছর ধরে সঙ্গীহীন!আপন’জন বলতে একটি ছেলে ও দুইটি মেয়ে আছে । তারা কেউ এই বৃদ্ধার খোঁজ খবর রাখেনা । বেঁচে থাকার জন্য মানুষের মৌলিক চাহিদা আছে।

তার মধ্যে এর খুবই গুরুত্বপূর্ণ (খাদ্য -বাসস্থান- চিকিৎসা) বর্তমানে এই বৃদ্ধার কোনটাই নেই বললেই চলে‌।

তার বেঁচে থাকার জন্য খাদ্য , বাসস্থান, চিকিৎসা খুবই প্রয়োজন। এই বৃদ্ধা মানুষের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে এই বয়সে ন্যুজ হাটতে পারেনা তারপরেও পেটের ক্ষুধা নিবারনের জন্য ভিক্ষাবৃত্তি করে তার জীবিকা নির্বাহ করে। দিনশেষে রাত্রি যাপন মাথা খোঁজার ঠাই জরাজীর্ণ পরিত্যক্ত ঘরে।

বৃদ্ধ মায়ের আাকুতি জীবনের এই পরন্ত বেলায় কেউ তার বাকী জীবনের দায়িত্ব নিলে কমপক্ষে শেষ বয়সে একটু হলেও স্বস্তির নিঃশ্বাস নিয়ে মৃত্যু বরণ করতে পারবে ,

স্থানীয় গণমাধ্যমে কর্মীরা বৃদ্ধ মহিলার এই অসহায় জীবনের বিষয়টি সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে তুলে ধরলে বিষয়টি ভোলা জেলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার মনিরাম বাজারের কাছে দফাদার বাড়ীর একজন পুলিশ সদস্য মোঃ জীবন মাহমুদ সোশ্যাল মিডিয়া এই বৃদ্ধ মায়ের পোস্টটি দেখে জীবন মাহমুদ তার আইডি দিয়ে পোস্ট করে বলেন -এই বৃদ্ধ মায়ের দায়িত্ব আমি নিবো এবং খুব শীগ্রই সুসংবাদ দিবো এই কথাটি লিখেন আমাদের ভোলা বোরহানউদ্দিনে এখনও অনেক দানবীর ব্যক্তি রয়েছেন আমাদের অজনায় সকল দানবীর ব্যক্তিদের প্রতি রইলো আমাদের শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা।

বোরহানউদ্দিন উপজেলার কাচিয়া ইউনিয়নের এমনই একজন দানবীর যোদ্বার কথা না বলেই নয়, তিনি কাচিয়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান, তিনি চেয়ারম্যান হওয়ার আগ থেকেই মসজিদ, মাদ্রাসায় সব সময় সাহায্য সহযোগীতা করতেন অসহায় ও গরীব দুঃখী মানুষের পাশে সব সময় থাকতেন। তারই ধারাবাহিকতায় একজন সফল চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক, গরীব অসহায় মানুষের আস্তা ভাজন জনাব আলহাজ্ব আঃ রব কাজী চেয়ারম্যান সাহেব
বৃদ্ধা ছহুরা বেগমকে একটি দৃষ্টি নন্দন নতুন ঘর, উপহার দিচ্ছেন নির্ধারিত জায়গায় আগামি দিন থেকে ঘরের কার্যক্রম শুরু হবে।

কাচিয়া ইউনিয়নের স্হানীয় লোকজন জানান- আমরা কাচিয়া ইউনিয়নবাসী গর্বিত আমরা এমন একজন চেয়ারম্যান পেয়েছি যিনি সব সময় অসহায় মানুষের কথা বলেন এবং আমাদের সুখ দুঃখে তিনি সব সময় পাশে থাকেন। আমরা পুনরায় তাকে কাচিয়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান হিসাবে দেখতে চাই।

আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।